Never Ending Desire of Human Beings

মানুষের চাওয়ার কি শেষ আছে ? নতুনত্বের নেশা মানুষের চিরন্তন । আমি চিরকালই নতুনত্বের নেশায় বুঁদ হয়ে থাকি। শিল্পী হিসেবে নতুন নতুন জায়গায় ঘোরা আমার নেশা আর এক জায়গায় একঘেয়েমি কাটাতে বেরিয়ে পড়ি সব সময় । বিশ্ববিদ্যালয়ের ছবি আঁকা শেখার সময়টুকুতে খুব বেশি পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে পারিনি ছবি আঁকার  মাধ্যমগুলো নিয়ে । আমি চিত্রকলার ছাত্রী থাকাতে শুধু মাত্র তেলরং নিয়ে কাজ করেছি। এখন আমি চাই শিল্পকলার প্রত্যেকটা মাধ্যমে কাজ করার ।

দুই বছর আগে ২০১৮ তে যখন আবার ছবি আঁকা শুরু করলাম তখন আমি এক্রিলিকে কাজ শুরু করেছিলাম। কাজগুলো নিয়ে ততটা আত্মবিশ্বাসী ছিলাম না। কারণ স্কুলে শিক্ষকতার পাশে ছাত্র ছাত্রীদের পড়ানোর ফাঁকে ফাঁকে কাজ করতাম । খুব অল্প সময়ে কাজগুলো করতাম । এখন যখন কিছু কাজ দেখি মনে হয় ভালই করেছি। তারপর ২০১৮ এর জুন থেকে  জলরং এর কাজ শুরু করলাম । এঁকেছি  অনেক ফুলের ছবি আর কিছু বন্ধ দরজা, শুকনো ঝড়া পাতা , এই গুলোই আমার প্রিয় বিষয় । এই দুই বছর হয় আঁকছি কিন্তু আমার প্রায় অনেক ছবি বিক্রি হয়ে গেছে কিছু এখনো আমার কাছে আছে। জলরং এর সুবিধা অল্প জায়গায় অনেক ছবি সংরক্ষণ করা যায় । কারণ জলরং এর কাজ করা হয় কাগজে । আরেকটা সুবিধা বিক্রি করা যায় কিছুটা কম দামে । তাই সেটা সাধারণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকে।

এখন এই ২০২০ এসে আবার আমি নতুন কোন মাধ্যমে কাজ করার চেষ্টা মাথার ঘুরতে লাগল ।  পেন স্কেচ ও করলাম কয়েকটা ।এখন  গোয়াস কালার দিয়ে শুরু করলাম কিছু ফোক মোটিফ নিয়ে এক্সপেরিমেন্টাল কাজ। আমি বুঝতে পারছি না কি হচ্ছে?  কিন্তু খুব আনন্দ পাচ্ছি কাজগুলো করতে । মনে হচ্ছে রং নিয়ে খেলছি আমি। আমার ছবি আঁকা আমাকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে । তাই আমি যা ভাল লাগে তাই আঁকি । এটা শিল্পমান সম্পন্ন কিনা সে চিন্তা আমি কখনোই করি না । নতুনত্বের নেশা আমাকে তাড়িত করে প্রতিনিয়ত নতুন  কিছু করার ।

এই ছবিগুলোতে আমি আমাদের ঐতিহ্য আলপনা আর নকশীকাঁথাকে তুলে ধরার চেষ্টা করছি। আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্য এই আলপনা আর নকশীকাঁথা  আমাদের গ্রামের অশিক্ষিত কিন্তু অসম্ভব মেধাবী নারী শিল্পীদের হাতে শুরু হয়েছিল । যারা সংসারের জন্য নিজের জীবনের সবটুকু সময় বিলিয়ে দেয় । আমি আমাদের বাংলাদেশের নারীর শিল্পবোধ কে সমগ্র পৃথিবীর কাছে তুলে ধরতে চাই ।

আমার এই শিল্পকলা আমার ভাল থাকার, ভালবাসার জায়গা । এই সমাজে নারীর জন্য ভালোবাসার বড়ই অভাব তাই আমি আমার শিল্পকলায় আমার ভালবাসা খুঁজে বেড়াই। এটাই আমার বেঁচে থাকার অনুপ্রেরণা খুঁজে । আমি এই বাংলাদেশের  সকল নারীকে বলবো নিজেকে ভালবাসুন আর নিজের ভালো লাগার কাজ করুন ভাল থাকবেন , সুস্থ থাকবেন ।

About the Author:

Developer Herwill

Developer Herwill

Leave a Reply

Your email address will not be published.